মানবতাবিরোধী অপরাধ:আজিজসহ ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড



একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে জামায়াতে ইসলামীর নেতা ও গাইবান্ধার সাবেক সংসদ সদস্য আবু সালেহ মুহাম্মদ আব্দুল আজিজ মিয়াসহ ছয়জনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

বুধবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করেন। বেঞ্চের অপর সদস্যরা হলেন বিচারপতি মো. সোহরাওয়ারদী ও বিচারপতি আবু আহমেদ জমাদার।
মামলায় অন্য আসামিরা হলেন—মো. রুহুল আমিন ওরফে মঞ্জু (৬১), মো. আবদুল লতিফ (৬১), আবু মুসলিম মোহাম্মদ আলী (৫৯), মো. নাজমুল হুদা (৬০) ও মো. আবদুর রহিম মিঞা (৬২)।
এই ছয় আসামির মধ্যে মো. আবদুল লতিফ কারাগারে আছেন। বাকি পাঁচ আসামি পলাতক। পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তার করে সাজা কার্যকর করতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পুলিশের আইজিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে ট্রাইব্যুনালের রায়ে।
আসামিদের বিরুদ্ধে একাত্তরে হত্যা, নির্যাতন, অপহরণসহ মানবতাবিরোধী তিন ধরনের অভিযোগ আনা হয়। তিন অভিযোগের মধ্যে প্রথমটিতে গাইবান্ধার মৌজামালি বাড়ি গ্রামে গিয়ে লুটপাট, স্বাধীনতার পক্ষের লোকজনকে আটক, অপহরণ ও নির্যাতন এবং পরে দাড়িয়াপুর ব্রিজে নিয়ে একজনকে হাত-পা বেঁধে নদীতে ফেলে হত্যার ঘটনায় আসামিদের আমৃত্যু কারাদণ্ড দিয়েছে ট্রাইব্যুনাল।

দ্বিতীয় অভিযোগে সুন্দরগঞ্জ থেকে ছাত্রলীগ নেতা মো. বয়েজ উদ্দিনকে ধরে মাঠেরহাট রাজাকার ক্যাম্প এবং থানা সদরে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর ক্যাম্পে নিয়ে আটকে রেখে নির্যাতন এবং পরে গুলি করে হত্যা করে তার লাশ মাটির নিচে চাপা দেওয়ার ঘটনায় ছয় আসামির সবাইকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

এবং তৃতীয় অভিযোগে সুন্দরগঞ্জ থানার পাঁচটি ইউনিয়নে স্বাধীনতার পক্ষের ১৩ জন চেয়ারম্যান ও মেম্বারকে আটক করে আটকে রেখে নির্যাতন এবং পরে নদীর ধারে নিয়ে গুলি করে হত্যার ঘটনাতেও আসামিদের সবার প্রাণদণ্ডের রায় এসেছে।

রায়ের পর লতিফের আইনজীবী খন্দকার রেজাউল আলম সাংবাদিকদের বলেন, “আমরা ন্যায়বিচার পাইনি। আপিল করব।”

পলাতক আসামিদের পক্ষে রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী গাজী এম এইচ তামিম বলেন, “প্রসিকিউশন এ মামলায় যেসব সাক্ষ্য প্রমাণ উপস্থাপন করেছে তাতে আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি হতে পারে না। ২০০১ ও ২০০৭ সালের যেসব দালিলিক প্রমাণ উপস্থাপন করা হয়েছে, সেগুলো রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে তৈরি করা হয়েছিল।”

গত ২৩ অক্টোবর উভয়পক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে মামলাটি রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ রাখা হয়। এর আগে গত ৯ মে এ মামলায় যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে ট্রাইব্যুনালের তৎকালীন চেয়ারম্যান বিচারপতি আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ রেখেছিলেন। ১১ অক্টোবর ট্রাইব্যুনাল পুনর্গঠন হওয়ায় মামলাটিতে পুনরায় যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করা হয়।

আব্দুল আজিজসহ গাইবান্ধার ছয়জনের বিরুদ্ধে ২০১৫ সালের ২৭ ডিসেম্বর আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিল করা হয়। একই বছরের ২৩ নভেম্বর প্রসিকিউশনের করা আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২৬ নভেম্বর ট্রাইব্যুনাল ছয়জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। এরপর মাত্র একজন আসামিকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় পুলিশ। পরে আজিজসহ সব আসামিকে পলাতক দেখিয়েই আদালতে মামলার বিচারিক কাজ শুরু হয়।

জামায়াতের কেন্দ্রীয় সদস্য আব্দুল আজিজ মিয়া ২০০১ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত চারদলীয় জোটের অধীনে জামায়াত থেকে গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনে সংসদ সদস্য ছিলেন।


মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে সরকার: ফখরুল

ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্যই গুম-খুন করে মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে সরকার, অভিযোগ মির্জা ফখরুলের। রোববার সকালে,…


প্রযুক্তিতে দক্ষ জনবল তৈরি করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী

শুধু রাজধানীকেন্দ্রিক নয়, তথ্য-প্রযুক্তির জ্ঞান তৃণমূলে ছড়িয়ে দিতে কাজ করে যাচ্ছে সরকার, জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ…


টেস্টের নতুন অধিনায়ক সাকিব

মুশফিকুর রহিমকে সরিয়ে বাংলাদেশ জাতীয় টেস্ট ক্রিকেট দলের অধিনায়ক করা হয়েছে সাকিব আল হাসানকে। এছাড়া…


আদালতে খালেদা জিয়া: আইন ভঙ্গ করিনি, কোন অপরাধ করিনি

প্রধানমন্ত্রী থাকার সময় সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দ্বায়িত্ব পালন করেছে বলে দাবি করলেন, বেগম খালেদা…


অ্যাটর্নি জেনারেকে প্রাণনাশের হুমকি

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে চিঠি দেয়ার পরিপ্রেক্ষিতে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে।…


গাজায় আবার ইসরাইলি বিমান-ট্যাংক হামলা

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় শুক্রবার রাতে আবার ইহুদিবাদী ইসরাইলের সামরিক বাহিনী নতুন করে বিমান ও…


বিএনপিকে ক্ষমতার বাইরে রাখতে হবে : তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, দেশের উন্নয়নে ২০১৮ সালের নির্বাচনে খালেদা জিয়া ও বিএনপিকে ক্ষমতার…


প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বললো সোফিয়া

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সোস্যাল রোবট সোফিয়া প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথোপকথনে যখন জানায় তাঁর নাতনীর নাম আর তার…


ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত ‘নরকের দ্বার খুলে দিবে’: হামাস

হোয়াইট হাউসে এক ভাষণে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বিতর্কিত জেরুসালেম শহরকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসাবে ঘোষণা দিয়েছেন। এই…


শেখ হাসিনাকে ‘বোন’ ডাকলেন হুন সেন

কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী হুন সেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘বোন’ ডেকেছেন। পররাষ্ট্র সচিব এম শহিদুল হক বৈঠক…


রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে নমপেনের সহযোগিতা কামনা ঢাকার

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে দমন-পীড়নের কারণে সৃষ্ট রোহিঙ্গা সঙ্কটের টেকসই সমাধান নিশ্চিত করতে কম্বোডিয়ার সহযোগিতা চেয়েছেন…


সোহরাওয়ার্দীর সংগ্রামী জীবন ও আদর্শ প্রেরণা জোগায়: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হোসেন শহিদ সোহরাওয়ার্দীর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেছেন, গণতন্ত্রের অগ্রযাত্রা ও…