মানবতাবিরোধী অপরাধ:আজিজসহ ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড



একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে জামায়াতে ইসলামীর নেতা ও গাইবান্ধার সাবেক সংসদ সদস্য আবু সালেহ মুহাম্মদ আব্দুল আজিজ মিয়াসহ ছয়জনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

বুধবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করেন। বেঞ্চের অপর সদস্যরা হলেন বিচারপতি মো. সোহরাওয়ারদী ও বিচারপতি আবু আহমেদ জমাদার।
মামলায় অন্য আসামিরা হলেন—মো. রুহুল আমিন ওরফে মঞ্জু (৬১), মো. আবদুল লতিফ (৬১), আবু মুসলিম মোহাম্মদ আলী (৫৯), মো. নাজমুল হুদা (৬০) ও মো. আবদুর রহিম মিঞা (৬২)।
এই ছয় আসামির মধ্যে মো. আবদুল লতিফ কারাগারে আছেন। বাকি পাঁচ আসামি পলাতক। পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তার করে সাজা কার্যকর করতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পুলিশের আইজিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে ট্রাইব্যুনালের রায়ে।
আসামিদের বিরুদ্ধে একাত্তরে হত্যা, নির্যাতন, অপহরণসহ মানবতাবিরোধী তিন ধরনের অভিযোগ আনা হয়। তিন অভিযোগের মধ্যে প্রথমটিতে গাইবান্ধার মৌজামালি বাড়ি গ্রামে গিয়ে লুটপাট, স্বাধীনতার পক্ষের লোকজনকে আটক, অপহরণ ও নির্যাতন এবং পরে দাড়িয়াপুর ব্রিজে নিয়ে একজনকে হাত-পা বেঁধে নদীতে ফেলে হত্যার ঘটনায় আসামিদের আমৃত্যু কারাদণ্ড দিয়েছে ট্রাইব্যুনাল।

দ্বিতীয় অভিযোগে সুন্দরগঞ্জ থেকে ছাত্রলীগ নেতা মো. বয়েজ উদ্দিনকে ধরে মাঠেরহাট রাজাকার ক্যাম্প এবং থানা সদরে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর ক্যাম্পে নিয়ে আটকে রেখে নির্যাতন এবং পরে গুলি করে হত্যা করে তার লাশ মাটির নিচে চাপা দেওয়ার ঘটনায় ছয় আসামির সবাইকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

এবং তৃতীয় অভিযোগে সুন্দরগঞ্জ থানার পাঁচটি ইউনিয়নে স্বাধীনতার পক্ষের ১৩ জন চেয়ারম্যান ও মেম্বারকে আটক করে আটকে রেখে নির্যাতন এবং পরে নদীর ধারে নিয়ে গুলি করে হত্যার ঘটনাতেও আসামিদের সবার প্রাণদণ্ডের রায় এসেছে।

রায়ের পর লতিফের আইনজীবী খন্দকার রেজাউল আলম সাংবাদিকদের বলেন, “আমরা ন্যায়বিচার পাইনি। আপিল করব।”

পলাতক আসামিদের পক্ষে রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী গাজী এম এইচ তামিম বলেন, “প্রসিকিউশন এ মামলায় যেসব সাক্ষ্য প্রমাণ উপস্থাপন করেছে তাতে আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি হতে পারে না। ২০০১ ও ২০০৭ সালের যেসব দালিলিক প্রমাণ উপস্থাপন করা হয়েছে, সেগুলো রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে তৈরি করা হয়েছিল।”

গত ২৩ অক্টোবর উভয়পক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে মামলাটি রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ রাখা হয়। এর আগে গত ৯ মে এ মামলায় যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে ট্রাইব্যুনালের তৎকালীন চেয়ারম্যান বিচারপতি আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ রেখেছিলেন। ১১ অক্টোবর ট্রাইব্যুনাল পুনর্গঠন হওয়ায় মামলাটিতে পুনরায় যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করা হয়।

আব্দুল আজিজসহ গাইবান্ধার ছয়জনের বিরুদ্ধে ২০১৫ সালের ২৭ ডিসেম্বর আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিল করা হয়। একই বছরের ২৩ নভেম্বর প্রসিকিউশনের করা আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২৬ নভেম্বর ট্রাইব্যুনাল ছয়জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। এরপর মাত্র একজন আসামিকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় পুলিশ। পরে আজিজসহ সব আসামিকে পলাতক দেখিয়েই আদালতে মামলার বিচারিক কাজ শুরু হয়।

জামায়াতের কেন্দ্রীয় সদস্য আব্দুল আজিজ মিয়া ২০০১ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত চারদলীয় জোটের অধীনে জামায়াত থেকে গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনে সংসদ সদস্য ছিলেন।


গুগল সার্চে উধাও ‘view image’

গুগল সার্চে উধাও ‘view image’

খ্যাত ছবি পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থা ‘গেটি ইমেজস’-এর সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধল ‘গুগল’। আর এই চুক্তির পরেই…


জাতীয় নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সজাগ থাকতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

জাতীয় নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সজাগ থাকতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আসন্ন জাতীয় নির্বাচন সুষ্ঠু ও…


২১ ফেব্রুয়ারি ৪ স্তরের নিরাপত্তা শহীদ মিনার এলাকায় : ডিএমপি

২১ ফেব্রুয়ারি ৪ স্তরের নিরাপত্তা শহীদ মিনার এলাকায় : ডিএমপি

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় চার স্তরের নিরাপত্তা বলয় গড়ে…


রাতারাতি আকাশছোঁয়া দর প্রিয়ার!

রাতারাতি আকাশছোঁয়া দর প্রিয়ার!

প্রিয়া প্রকাশ। গত কয়েকদিন ধরে এই একটা নাম যেন ইন্টারনেটের সার্চ ইঞ্জিনে ঝড় তুলেছে। তাঁর…


প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরেছেন

প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরেছেন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতালি ও ভ্যাটিকান সিটিতে চারদিনের সরকারি সফর শেষে আজ সন্ধ্যায় দেশে ফিরেছেন।…


ডিসেম্বরে অবসর নেব: অর্থমন্ত্রী

ডিসেম্বরে অবসর নেব: অর্থমন্ত্রী

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেছেন তিনি আগামী ডিসেম্বরে অবসরে যাবেন। আজ শনিবার এ কথা…


রায়ের কপি নিয়ে ধুম্রজাল সৃষ্টি করছে সরকার: ফখরুল

রায়ের কপি নিয়ে ধুম্রজাল সৃষ্টি করছে সরকার: ফখরুল

খালেদা জিয়ার মামলার রায়ের সত্যায়িত কপি নিয়ে সরকার পরিকল্পিতভাবে ধুম্রজাল সৃষ্টি করছে অভিযোগ মির্জা ফখরুলের।…


দেশকে এগিয়ে নিতে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখতে হবে: সেতুমন্ত্রী

দেশকে এগিয়ে নিতে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখতে হবে: সেতুমন্ত্রী

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, দেশকে এগিয়ে নিতে…


প্রশ্নপত্র ফাঁস তদন্তে দুই কমিটি গঠন

প্রশ্নপত্র ফাঁস তদন্তে দুই কমিটি গঠন

২০১৮ সালের এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের তদন্ত করতে বিচার বিভাগীয় ও প্রশাসনিক দুটি কমিটি গঠন…


২এপ্রিল এইচএসসি শুরু

২এপ্রিল এইচএসসি শুরু

আগামী ২ এপ্রিল থেকে সারাদেশে ২০১৮ সালের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা একযোগে শুরু হবে। তত্ত্বীয়…


গৃহকর্মী ফাতেমাকে সঙ্গে পেলেন খালেদা জিয়া

গৃহকর্মী ফাতেমাকে সঙ্গে পেলেন খালেদা জিয়া

দুর্নীতির দায়ে কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া তার মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে পেয়েছেন গৃহকর্মী ফাতেমাকে।আদালতের আদেশক্রমে…


‘দুর্নীতিবাজদের অবশ্যই বিচার হবে’

‘দুর্নীতিবাজদের অবশ্যই বিচার হবে’

সরকার তাঁর বিরুদ্ধে দায়েরকৃত কোন মামলা প্রত্যাহার করেনি উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের শান্তি ও…