খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য খুব ভালো নয় -মির্জা ফখরুল

খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য খুব ভালো নয় -মির্জা ফখরুল

বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) স্বাস্থ্য খুব ভালো নয়। প্রথম থেকেই আমরা তার স্বাস্থ্য সম্পর্কে খুব উদ্বিগ্ন। তার সমস্যাগুলো বেশ বেড়ে গেছে। এখন হাঁটতেও কষ্ট হয়। তার স্নায়বিক সমস্যাও দেখা দিয়েছে।

শুক্রবার বিকেলে পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের কারাগারে দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়ার জন্য প্রয়োজনীয় চিকিৎসা যেটা দরকার, দুঃখজনকভাবে সেই চিকিৎসা তিনি এখনো পাচ্ছেন না। কারণ, তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের সঙ্গে তাকে এখন পর্যন্ত দেখা করতে দেওয়া হয়নি বা স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে দেওয়া হয়নি। অবিলম্বে ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের সঙ্গে তাকে দেখা করতে দেওয়াটা জরুরি। কারণ তিনি সত্যিকার অর্থেই স্বাস্থ্য সমস্যায় পড়েছেন।

খালেদা জিয়াকে কেমন দেখলেন- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে বিএনপি’র এই নেতা বলেন, বন্দি জীবনে উনি (খালেদা জিয়া) অভ্যস্ত নন। তাকে যখন বন্দি করে রাখা হয়, তখন চাপ পড়েই। তবে উনার মনোবল অনেক দৃঢ়। উনি আমাদের চেয়েও দৃঢ় মনের মানুষ। উনি বার বার এ কথা বলেছেন যে, ‘আমার জন্য আপনারা ভাববেন না। আমি ভালো আছি, আমি শক্ত আছি এবং এসব ছোটো-খাটো বিষয় আমাকে কোনো সমস্যায় ফেলবে না।’

কারাগারে খালেদা জিয়ার থাকার পরিবেশ নিয়ে তিনি বলেন, তার (খালেদার) জন্য যেটা করা দরকার, সেটা হচ্ছে না, করছে না। কিন্তু ন্যূনতম যেটা করা দরকার, সেটা করছে।

এর আগে গত শুক্রবার নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর চেয়ারপারসনকে জামিনে মুক্তি দিয়ে অবিলম্বে চিকিৎসার সুযোগ দেওয়ার দাবি জানান। তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে নিজস্ব চিকিৎসকদের মাধ্যমে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও সুচিকিৎসার সুযোগ দিতে হবে।

মির্জা ফখরুলের বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে ওইদিন দুপুরে ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা শেষে দলের সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের অসুস্থতার জন্য প্রয়োজন হলে সরকার চিকিৎসার ব্যবস্থা নেবে। পরে তার চিকিৎসায় মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। তার আগে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন আদালত। সেদিন থেকেই তিনি কারাবন্দি রয়েছেন।

Related posts

Leave a Comment