দশদিক মহাদেশ

হোম অর্থনীতিপ্রেসিডেন্ট পুলিশ পদক পেলেন টাঙ্গাইলের এসপি ও তদন্ত কর্মকর্তা

প্রেসিডেন্ট পুলিশ পদক পেলেন টাঙ্গাইলের এসপি ও তদন্ত কর্মকর্তা

টাঙ্গাইলের আওয়ামী লীগ নেতা ফারুক আহমেদ হত্যার রহস্য উদঘাটনের জন্য মামলার তদারককারী এবং তদন্তকারী কর্মকর্তা প্রেসিডেন্ট পুলিশ পদক (পিপিএম) পেয়েছেন।

পুলিশ সপ্তাহ উপলক্ষে মঙ্গলবার ঢাকার রাজারবাগ পুলিশ লাইনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে পদক গ্রহণ করেন টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সালেহ মোহাম্মদ তানভীর ও এসআই অশোক কুমার সিংহ।

পুলিশ বিভাগ সূত্র জানায়, সালেহ মোহাম্মদ তানভীরকে ফারুক আহমেদ হত্যা মামলার সফল তদারকি ও জেলার সার্বিক আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি উন্নয়নের জন্য এবং অশোক কুমার সিংহকে বহুল আলোচিত ওই হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন এবং বেশকিছু অস্ত্র উদ্ধারের জন্য পদক দেওয়া হয়েছে।

টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমেদের গুলিবিদ্ধ লাশ ২০১৩ সালের ১৮ জানুয়ারি রাতে শহরের কলেজপাড়া এলাকায় তার বাসার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়।

ঘটনার তিনদিন পর ফারুক আহমেদের স্ত্রী নাহার আহমেদ বাদী হয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে টাঙ্গাইল সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলাটির তদন্তভার প্রথমে সদর থানা পুলিশকে দেওয়া হয়। প্রায় এক বছরেও এর রহস্য উদঘাটন না হওয়ায় পরে ২০১৪ সালের ১০ জানুয়ারি এর তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) অশোক কুমার সিংহকে। প্রায় সাত মাস তদন্ত শেষে এই হত্যাকা-ে জড়িত দুজনকে গ্রেফতার করা হয়। আদালতে দেওয়া তাদের জবানবন্দিতে ফারুক আহমেদ হত্যার সঙ্গে টাঙ্গাইল-৩ আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সাংসদ আমানুর রহমান খান (রানা) এবং তার তিন ভাই টাঙ্গাইল পৌরসভার মেয়র সহিদুর রহমান খান (মুক্তি), ব্যবসায়ী নেতা জাহিদুর রহমান খান (কাকন) এবং ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি সানিয়াত খান (বাপ্পা) জড়িত থাকার বিষয়টি বের হয়ে আসে। এ ঘটনার পর থেকে সাংসদ আমানুর ও তার ভাইদের এলাকায় দেখা যাচ্ছে না।


পাতাটি ৩২৯৮ বার প্রদর্শিত হয়েছে।