দশদিক মাসিক

হোম মালয়েশিয়া কমিউনিটি মালয়েশিয়া এবার বাংলাদেশী পর্যটকের পদভারে মুখরিত

মালয়েশিয়া এবার বাংলাদেশী পর্যটকের পদভারে মুখরিত

মালয়েশিয়া এবার বাংলাদেশী পর্যটকের পদভারে মুখরিত

দশদিক প্রতিবেদক: দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় অবস্থিত ড. মাহাথির মোহাম্মদ এর তৈরী পর্যটন নগরী মালয়েশিয়া বিশ্বের পর্যটকদের মাঝে দিন দিন প্রথম পছন্দের স্থান হয়ে উঠছে। ইউরোপ, আমেরিকা, অষ্ট্রেলিয়া সহ মধ্যপ্রাচ্য থেকে আসা পর্যটকদের মাঝে এখন বড় একটি অংশ বাংলাদেশী পর্যটক। মালয়েশিয়ার ট্যুরিজম সার্ভিস ভিসিট মালয়েশিয়ার তথ্য মতে জানা যায় বিগত বছরগুলোর চাইতে গত নভেম্বর/ডিসেম্বর ও চলতি মাসে এ পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা পর্যটকদের মধ্যে সর্বোচ্চ সংখ্যক পর্যটক এসেছে বাংলাদেশ থেকে।
বর্তমানে বাংলাদেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও দেশে অস্থিতিশীলতার কারণেই এসব পর্যটকদের আসার মূল কারণ। মালয়েশিয়ায় পর্যটকদের সবচাইতে দর্শনীয় স্থানগুলো যেমন- পুত্রাজায়া, টুইন টাওয়ার (কেএল.সি.সি), গ্যনথিংহাইল্যান্ড, ক্যামেরুন হাইল্যান্ড,বাতুকেবস,লংকাউই এর মত স্থান গুলো। এসব স্থানগুলোতে অন্যান্য জাতির চেয়ে এইবার বাংলাদেশী পর্যটকরাই চোখে পড়ার মত। ঢাকা থেকে আসা ব্যবসায়ী মোঃ নজরুল ইসলাম জানান- আমরা চার বন্ধু এসেছি। আমরা যদিও এর আগে আরো কয়েকটি দেশে ভ্রমন করে এসেছি কিন্তু এই প্রথম আমার মালয়েশিয়া আসা। এখানে এসে আমাদের কাছে খুব ভালো লেগেছে। মালয়েশিয়ায় এসে বিভিন্ন স্পটগুলো দেখে আমাদের খুব ভালো লেগেছে। পরবর্তীতে আমার পরিবার কে নিয়ে আসবো। তবে এখানে সবচাইতে ভালো লেগেছে প্রবাসী বাংলাদেশীদের সহযোগিতা ও অতিথিয়েতায়। তাদের শত ব্যস্ততার মাঝেও আমাদেরকে যথেষ্ট সময় দিয়েছে।
ঢাকা থেকে আসা আরেক পর্যটক ডা. এমদাদুল হক ভূইয়া পরিবার সহ সদস্য সংখ্যা মোট ৫জন এসেছেন মালয়েশিয়া ভিজিট করতে । কুয়ালালামপুর বুকিত বিনতাং এ অবস্থিত বাংলাদেশী অভিজাত রেষ্টুরেন্ট রসনা বিলাস এ খেতে আসা ডা. এমদাদুল হক জানান- বাংলাদেশের এই দূরহ পরিস্থিতিতে এখানে এসে অনেক ভালো লেগেছে। এখানে নেই কোন যানজট কোন রাজনৈতিক হানা-হানি অথবা হরতাল অবরোধ। এখানকার রাস্তাঘাট সহ যতদূর যাই আর দেখি নিজেই মুগ্ধ হয়ে যাই ।
বাংলাদেশ থেকে আসা প্রকৌশলী আবু সাঈদ এর সাথে কথা হলো, তিনি উঠছেন বুকিত বিনতাং এ অবস্থিত বাংলাদেশী মালিকানাধীন আবাসিক হোটেল আল্-জাফস্ এ। তিনি জানালেন ক্ষোভের সাথে আমাদের দেশে যে ঘৃণ্য রাজনীতি, এই পরিস্থিতিতে আমাদের আগামী প্রজন্ম শুধু হিংসা হানাহানি ছাড়া আর কিছুই শিখতে পারবে না। এখানে এসে আমরা লক্ষ্য করছি প্রবাসীদের মাঝেও যে দেশ প্রেম এবং দেশ নিয়ে তাদের যত ভাবনা তা আমাকে মুগ্ধ করেছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায় বর্তমানে মালয়েশিয়ায় ট্যুরিস্টে আসা কিছু সংখ্যক আছে যারা এখনকার ক্ষমতাশালীদের ছত্রছায়ায় বিভিন্ন ভাবে দূর্নীতি করে কোটিপতি হয়েছে এবং বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িত তারা এখানে স্যাটেল্ড হওয়ার চেষ্টা করছে ।


পাতাটি ১৬৩৯ বার প্রদর্শিত হয়েছে।