• শিরোনাম

    উইঘুরদের নিয়ে ভাবতে হবে

    | ১০ মার্চ ২০১৯ | ৫:১৮ অপরাহ্ণ | পড়া হয়েছে 548 বার

    উইঘুরদের নিয়ে ভাবতে হবে

    চীনের অভ্যন্তরীণ বিষয় বাইরের জগতে কমই গুরুত্ব পায়। চীনের খবরাখবর সরকারনিয়ন্ত্রিত ‘সিনহুয়া’ এবং কয়েকটি সংবাদপত্রের পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে বহির্বিশ্বে পরিবেশিত হয়। তারপরও চীনের জিনজিয়াং প্রদেশের উইঘুর মুসলিমদের ওপর নির্যাতনের খবর বিশ্ব মিডিয়ায় আসছে।

    তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বন্দিশিবিরে ১০ লক্ষাধিক উইঘুর মুসলিমকে আটকে রাখার তীব্র নিন্দা জানিয়ে এগুলো বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে। এতে বলা হয়েছে- চীনের এসব বন্দিশিবির মানবতার জন্য ভয়াবহ লজ্জাজনক। বন্দিশিবিরে আট বছর ধরে আটক থাকা জনপ্রিয় সুরকার ও সঙ্গীতশিল্পী আবদুর রহিম হায়াতের মৃত্যুর খবর প্রকাশের পর এ আহ্বান জানায়।

    ১০ লাখ উইঘুর মুসলিমকে কনসেনট্রেশন ক্যাম্পে আটক রাখার খবর নতুন নয়। গত বছর আগস্টের শেষ দিকে এ বিষয় উত্থাপন করেছে জাতিসঙ্ঘের মানবাধিকার কমিটি। উইঘুর মুসলিমদের ওপর নির্যাতনের বর্ণনা দিয়ে এবং উদ্বেগ প্রকাশ করে অবিলম্বে তাদের মুক্তি দেয়ার আহ্বান জানিয়েছিল ওই কমিটি। জাতিসঙ্ঘের জাতিগত বৈষম্য দূরীকরণ কমিটি দাবি করে, উইঘুরদের গণহারে আটক রাখার ‘বিশ্বাসযোগ্য তথ্য’ তাদের কাছে আছে।
    চীন এখন বিশ্বের এক নম্বর অর্থনৈতিক অগ্রগতির দেশ এবং সামরিকভাবে তৃতীয় পরাশক্তি। তা ছাড়া, চীন দেশে দেশে সবচেয়ে বড় অর্থ বিনিয়োগকারী দেশও।

    চীন এখন ‘বেল্ট অ্যান্ড রোড’ নামে এশিয়া ইউরোপ আফ্রিকা মহাদেশজুড়ে ৬৮টি দেশকে নিবিড় যোগাযোগের বন্ধনে আবদ্ধ করার মহাপরিকল্পনায় এগিয়ে যাচ্ছে। তাই চীনের ১৩৫ কোটি জনসংখ্যার মধ্যে ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠী উইঘুর মুসলিমদের নিয়ে মাথা ঘামানোর লোকের অভাব আছে। তবে উইঘুরদের পাশে দাঁড়িয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান।

    উইঘুর মুসলিমদের ব্যাপারে তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হাসি আকসয় বলেন, চীনের ‘কনসেনট্রেশন ক্যাম্পে’ নির্যাতনের মাধ্যমে বন্দীদের মগজ ধোলাই করা হয়। মানবতার প্রতি শ্রদ্ধা দেখিয়ে বন্দিশিবির বন্ধের আহ্বান জানাচ্ছে তুরস্ক। নিপীড়ন কেন্দ্র ও কারাগারগুলোকে নির্যাতন ও মগজ ধোলাইয়ের লক্ষ্যে পরিণত করা হয়েছে। তিনি বলেন, চীনা কর্তৃপক্ষকে আমরা উইঘুর তুর্কিদের মৌলিক মানবাধিকারের প্রতি সম্মান প্রদর্শনের আহ্বান জানাই। একুশ শতাব্দীতে কনসেনট্রেশন ক্যাম্পের পুনঃপ্রবর্তন এবং উইঘুরদের বিরুদ্ধে চীনের সুপরিকল্পিত ‘আত্তীকরণ’ নীতি মানবতার জন্য অত্যন্ত বিব্রতকর। তিনি বলেন, শিল্পী হায়াতের মৃত্যুতে জিনজিয়াংয়ে গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়ে তুরস্কের জনগণের প্রতিক্রিয়া আরো তীব্র হয়েছে।

    মন্তব্য করুন

    মন্তব্য

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দশদিক