• শিরোনাম

    জাপানের শিক্ষা ব্যবস্থায় আমাদের নতুন প্রজন্ম, প্রস্ততি এবং বাস্তবতা (পর্ব-২)

    ড. সৈয়দ জামান (লিংকন) | ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ১২:৩৪ অপরাহ্ণ | পড়া হয়েছে 272 বার

    জাপানের শিক্ষা ব্যবস্থায় আমাদের নতুন প্রজন্ম, প্রস্ততি এবং বাস্তবতা (পর্ব-২)

    জাপানীজ স্কুল ভার্সেস ইন্টারনেশনাল স্কুল জাপান দেশটা বোধহয় সারাবিশ্ব থেকে একটু আলাদা। জাতী হিসেবে নিজেদের সংস্কৃতি, কৃষ্টি বজায় রাখার জন্য ওরা সর্বদা সচেষ্ট এবং পড়াশুনা কিংবা চাকুরী করার জন্য নিজেদের দেশের বাইরে খুব একটা যেতে চায় না। উচ্চশিক্ষা এবং চাকরীর ক্ষেত্রে জাপানই তাদের পছন্দ। যার ফলে জাপানে ইন্টারনেশনাল স্কুল খুব বেশী জনপ্রিয় নয়। এখানে ইন্টারনেশনাল স্কুলের সংখ্যা হাতে গুনা কয়েকটি মাত্র এবং এসব স্কুলে বেশীর ভাগ ছাত্রছাত্রীই আবার আমাদের মত প্রবাসীদের সন্তান। তবে ইদানিং জাপানে বিদেশীদের সংখ্যা বাড়ার কারনে কিছু দেশের ইংরেজী মাধ্যমের স্কুল গড়ে উঠছে, বিশেষ করে টোকিও এর আশে পাশে বেশ কয়েকটি ইন্ডিয়ান স্কুল গড়ে উঠেছে।
    জাপানিজরা তাদের সন্তানদের পড়াশুনার জন্য ইংরেজী মাধ্যমের স্কুল বিবেচনা না করলেও আমাদের মত বিদেশীরা এটা নিয়ে বেশ চিন্তা করে। আমাকে বেশ কয়েকজন বাংলাদেশী বাবা-মা এ ব্যাপারে প্রশ্ন করেছে বেশ কয়েকবার। তাই এই বিষয়টি আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানের মাধ্যমে বিশ্লেষণ করার চেষ্টা করব। বাচ্চা জাপানীজ স্কুলে যাবে নাকি ইন্টারনেশানাল স্কুলে যাবে এটা একান্তই বাচ্চার বাবা মায়ের ডিসিশন। আমি শুধু দুটোর সুবিধা অসুবিধার তুলনামূলক আলোচনা করব।
    স্কুল কিংবা শিক্ষার মাধ্যম ঠিক করার আগে যেসব জিনিস অবশ্যই বিবেচনা করা উচিত
    ১। আর্থিক সামর্থ্য
    জুনিয়র থেকে সিনিয়র স্কুল পর্যন্ত বছরে আনুমানিক খরচ জাপানিজ ইয়েন এ দেয়া হল
    ইন্টারনেশনাল (English Version) ২,০০০,০০০-৩,০০০,০০০
    ইন্ডিয়ান স্কুল (English Version) ১,০০০,০০০-২,০০০,০০০
    প্রাইভেট স্কুল (Japanese Version) ৮০০,০০০-১২০০,০০০
    সরকারী স্কুল (Japanese Version) অলমোস্ট ফ্রী

    এখানে ইন্টারনেশনাল এবং ইন্ডিয়ান স্কুলের খুব বড় একটা পার্থক্য আছে আর সেটা হল ইন্টারনেশানাল স্কুলগুলোর সিলেবাস/কারিকুলাম সাধারণত আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত তবে ইন্ডিয়ান স্কুলগুলোর সিলেবাস/কারিকুলাম সেন্ট্রাল বোর্ড অফ এডুকেশন অফ ইন্ডিয়ান এর অধীনে এবং সারটিফিকেট ও সেন্ট্রাল বোর্ড অফ এডুকেশন অফ ইন্ডিয়ান থেকে দেয়া হয়।
    ২। উচ্চ শিক্ষার সুযোগ
    যেকোন বিদ্যালয়ে ভালো ফলাফল করলে উচ্চশিক্ষার সুযোগ থাকে। তবে ইন্টারনেশানাল এবং ইন্ডিয়ান স্কুল থেকে পড়া শেষ করে জাপানীজ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ সীমিত হয়ে যায়। এখানকার ইন্টারনেশনাল স্কুল থেকে পড়াশুনা শেষ করে পশ্চিমা দেশের নামকরা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ থাকে তবে অবশ্যই ভালো ফলাফল আবশ্যক। ইন্ডিয়ান স্কুল থেকে ইন্ডিয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ থাকে পাশাপাশি পশ্চিমা দেশের কিছু কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ থাকলেও High Ranking বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি কিছুটা কঠিন। ইন্ডিয়ান বোর্ডের অধীনে হওয়াতে জাপানে বসবাসরত ইন্ডিয়ানদের মাঝে ইন্ডিয়ান স্কুল বেশ জনপ্রিয়।
    জাপানীজ মাধমের স্কুলের পড়া শেষ করে ভালো ফলাফল সাপেক্ষে জাপানসহ বিশ্বের যেকোন ইন্টারনেশানাল স্কুলে ভর্তির সুযোগ থাকে।
    বাংলাদেশী বাবা মা দের যেসব বিষয় মাথায় রাখা দরকার-
    ১। সন্তানের ভবিষ্যৎ সেটেলমেন্ট
    যদি মনে করেন আপনার সন্তান জাপান নয়, পশ্চিমা দেশে সেটেলমেন্ট হবে, তাহলে ইন্টারনেশানল স্কুলে পড়াতে পারেন চোখ বন্ধ করে
    আর যদি মনে করেন সন্তান বড় হয়ে ডিসিশন নিবে তাহলে তার জন্য উত্তম হবে জাপানীজ মাধ্যমে পড়াশুনা করা। জাপানীজ স্কুল শেষ করে চাইলে সে জাপানের পাশাপাশি পশ্চিমা দেশে পড়াশুনা কিংবা সেটেলমেন্ট করতে পারবে।
    তবে ইন্টারনেশানাল স্কুলে পড়া শেষ করে জাপানীজ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া এবং জাপানে সেটেলমেন্ট করা খুব কঠিন হবে।
    ২। আপনার ভবিষ্যৎ সেটেলমেন্ট
    আপনার যদি অদূর ভবিষ্যতে জাপান থেকে অন্য দেশে চলে যাবার পরিকল্পনা থাকে সে ক্ষেত্রে সামর্থ্য অনুযায়ী ইন্টারনেশানাল কিংবা ইন্ডিয়ান স্কুল বিবেচনা করতে পারেন। তবে এখানেও কথা থাকে আপানার সন্তান জাপানীজ স্কুলে পড়লেও মাঝ পথে অন্য দেশে গিয়ে খুব বেশি সমসায় পড়বে না, কারন জাপানীজ স্কুলের সিলেবাস অনেক রিচ, এটা নিঃসন্দেহে বলা যায়।
    আমরা দেশ থেকে উচ্চ শিক্ষা অর্জনের জন্য জাপানে এসে আমাদের সন্তানদের উচ্চ শিক্ষা অর্জনের জন্য অন্য দেশে ঠেলে দেয়াটা আমার কাছে খুব যুক্তিসংগত মনে হয় না।
    ইংলিশ স্কুলে দেয়ার আগে নিজেকে প্রশ্ন করুন কেন সন্তানকে ইংলিশ স্কুলে পড়াতে চান। যদি উত্তর হয় ইংরেজী শিখার জন্য তাহলে আমি বলব এই ইংরেজী শেখার খরচটা বড্ড বেশী, শুধু ইংরেজী শেখার জন্য ইংরেজী মাধ্যমে পড়ানোটা বুদ্ধিমানের কাজ নয়। মাথাটা ঠাণ্ডা করে চিন্তা করুন, ভাষাগত সমস্যার জন্য আপনার সন্তানের পড়াশুনা আটকে থাকবেনা। ২-৩ বছর অপেক্ষা করলে আপনার সন্তানই আপানার জাপানীজ দোভাষীর কাজ করে দিতে পারবে।
    আগামী পর্বে জাপানের স্কুলগুলোর পড়াশুনা এবং আমাদের বাবা-মা দের করনীয় নিয়ে লিখব।
    লিংকন সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০
    টোকিও জাপান
    Facebook Comments



    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    ২৪ জুন ২০১৯

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দশদিক