• শিরোনাম

    জাপানে পড়তে আসার প্রস্তুতি নিচ্ছেন? কী কী নিয়ে আসবেন?

    আশির আহমেদ | ১৯ অক্টোবর ২০২০ | ৮:০৫ পূর্বাহ্ণ | পড়া হয়েছে 120 বার

    জাপানে পড়তে আসার প্রস্তুতি নিচ্ছেন?  কী কী নিয়ে আসবেন?

    যারা অক্টোবর সেমিস্টারে জাপানে পড়াশুনার সুযোগ পেয়েছেন, সবাইকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। ওয়েলকাম টু জাপান।
    বহু জল্পনা কল্পনা শেষে জাপান সরকার ছাত্রদের জন্য ভিসা অনুমোদন দিয়েছে। বিভিন্ন দেশে জাপানের দূতাবাস বৃত্তিপ্রাপ্ত ছাত্রদের জন্য ভিসা প্রস্তুতি শুরু করেছেন। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো কাগজপত্র তৈরি শুরু করেছেন। ছাত্রদের এসেই ১৪ দিনের কোয়ারান্টাইনে থাকতে হবে।
    আসার সময় সাথে কী আনবেন? কী প্রয়োজনীয়? কী অপ্রয়োজনীয়? আগের লেখাটুকু একটু ঘষে দিলাম।
    আমরা যখন জাপানে এসেছি তখনকার প্রেক্ষাপট আর এখনকার প্রেক্ষাপট আলাদা।
    চলুন না সবার অভিজ্ঞতা দিয়ে একটা লিস্ট তৈরি করি।
    –[আনবেন লিস্ট]———-
    [আনবেন -১]
    অক্টোবর মাস। ঠাণ্ডা শুরু হবে। গরম কাপড় নিয়ে আসুন- জ্যাকেট, ওভার কোট, কান টুপি, হাত মোজা, মাফলার ইত্যাদি। গুলিস্তানের বঙ্গবাজারে, ঢাকার কলেজের বিপরীতে নুরজাহান মার্কেটে রিজেক্টেড গার্মেন্টস সস্তায় পাওয়া যেতে পারে। এখানে এসে ও কিনতে পারেন। ইদানীং পোশাক আসাক বাইরে থেকে আমদানি হয়। দাম ও কম।
    [আনবেন -২]
    প্রফেসর, সাথিদের জন্য গিফট। ছোট হাল্কা। কাজে লাগবে এমন। যেমন- আড়ং এর ছোট ছোট হাতের কাজের ব্যাগ। কাপড়ের । কাজি-কাজি এর তৈরি অরগানিক চা। খাবার দাবার এভয়েড করা ভাল। তবে শুকনা খাবার যেমন চানাচুর অনেকে পছন্দ করেন।
    [আনবেন -৩]
    আপনার স্মার্টফোন। এখানে মোবাইল ফোন নেয়া সময় সাপেক্ষ। বেশ কয়েকদিন অপেক্ষা করতে হয়। তবে আপনার স্মার্টফোন টি নিয়ে আসলে এখানে ফোন পাওয়া পর্যন্ত দেশের সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন। পাবলিক জায়গা গুলো তে সাধারণত ফ্রি ওয়াইফাই পাবেন।
    [আনবেন-৪]
    কিছু ইয়েন। আপনার প্রথম বৃত্তি/বেতন কবে পাবেন, আগে জেনে নিন। সামর্থ্য থাকলে প্রথম ১ মাস চলার মত ইয়েন। ১০০,০০০ ইয়েন এর মত। ডলার আনলে আপনাকে আবার ইয়েনে কনভার্ট করতে হবে। ঝামেলা। অতিরিক্ত কমিশন ও দিতে হবে। ঢাকায় ইয়েন কিনতে পাওয়া যায়।
    [আনবেন-৫]
    রান্না শিখে আসুন। অথবা রান্নার বই। সঙ্গে মশলা। মসল্লার দাম এখানে বেশি।
    [আনবেন-৬]
    ড্রাইভিং লাইসেন্স। বাংলাদেশি এবং ইন্টারন্যাশনাল দুটাই। বাই সাইকেল চালানো শিখে আসুন।
    [আনবেন-৭]
    পাসপোর্ট সাইজের ছবি। রঙ্গিন। ২০-২৫ টা। সফট কপি নিয়ে আসলে এখানে ও সস্তায় প্রিন্ট করতে পারবেন।
    [আনবেন-৮]
    বিয়ে করে থাকলে বিবাহ সনদ পত্র। সাথে আপনার স্বামী/বউ। আমি এক আপু কে চিনি এখানে এসে জামাই-বিরহে কাঁদতে কাঁদতে শেষ।
    তাছাড়া দেশে স্পাউজ রেখে আসলেই বিপদ। সন্দেহ বাড়বে। বাড়াবে। লোকজন ও আকথা-কুকথা ছড়াবে। এই কাজটি করবে আপনার সবচেয়ে কাছের বন্ধুটি।
    [আনবেন-৯]
    পার্সোনাল মেডিসিন। বিশেষ করে সর্দি, কাশ, জ্বরের ঔষধ।
    [আনবেন-১০]
    আমাদের ট্র্যাডিশনাল পোশাক। শাড়ি, পাঞ্জাবি ইত্যাদি। আর একটা জাতীয় পতাকা। দেশের কিছু পিক্টোরিয়াল বই। অনেক জায়গায় আপনাকে বাংলাদেশের ওপর বক্তৃতা দিতে হতে পারে।
    [আনবেন-১১]
    দেশি মিউজিক ইন্সট্রুমেন্ট, যদি গান বাজনায় আগ্রহ থাকে। পিয়ানিকা, হারমোনিয়াম, বাঁশি। আর যদি নাচ প্রাকটিস থাকে তাহলে পোশাক, ঘুঙ্গুর ইত্যাদি।
    [আনবেন-১২]
    Universal Converter, জাপানের সকেট গুলো চ্যাপ্টা দুই পিন ওয়ালা (creditFaisal Huda)
    [আনবেন-১৩]
    কিছু জাপানি শব্দ। যেমন আমার নাম বাবু- ওয়াতাশি ওয়া বাবু দেসু। আরিগাতো- ধন্যবাদ। দাইসুকি – খুব পছন্দ। (credit Rita Barua)
    [আনবেন-১৪]
    যারা নামাজ পড়েন; একটা জায়নামাজ; যারা পড়েন না কিন্তু পড়বেন তারাও নিয়ে আসবেন। (credit: Mahfuz kamal)
    [আনবেন-১৫]
    বিছানার চাদর; বালিশের কভার। প্রথম প্রথম এগুলো কিনতে মায়া লাগতে পারে। (credit: Mahfuz kamal)
    ….
    ….
    [আনবেন-১০০] দুইটা করে জাপান-কাহিনির বই। রকমারি তে পাবেন।
    https://www.rokomari.com/book/author/32527/ashir-ahmed
    –[আনবেন না লিস্ট]———-
    [আনবেন না-১]
    কাঁচা সবজি, ফলমুল আনা বেআইনি। শুকনা খাবার মসল্লা জাতীয় জিনিস আনা যায়। অনেকে রাঁধা মাছ মাংস নিয়ে আসেন। এটা ও আইনত বেআইনি। তবে অনেকে পার পেয়ে যান। এখানে হালাল দোকান থেকে মাছ মাংস, মসল্লা সব কিছুই পাওয়া যায়। ই-কমার্সে অর্ডার দিলে বাসায় পৌঁছে দেয়। http://baticrom.com/
    [আনবেন না-২]
    ২২০ ভোল্টের ইলেকট্রিক পণ্য।
    [আনবেন না-৩]
    অতিরিক্ত স্যাম্পু, সাবান, টুথপেস্ট। এগুলো এখানে কোয়ালিটি ও ভাল। দামে ও সস্তা।
    [আনবেন না-৪]
    বাংলাদেশি টাকা। অতিরিক্ত খাতা কলম। অনেকে প্রিন্টিং কাগজ ও নিয়ে আসেন, এটার দরকার নেই।
    [আনবেন না-৫]
    থালা বাসন, হাণ্ডি পাতিল। এখানে দেইক্ষ্যা লন বাইছা লন দোকান আছে। দাম ১০০ ইয়েন। কোয়ালিটি খারাপ না। আবার রিসাইকেল সপ গুলোতেও সস্তায় নতুন জিনিশ পাওয়া যায়।
    [আনবেন না-৬]
    জাপানি ল্যাঙ্গুয়েজ বইয়ের ফটোস্ট্যাট করা কপি বই। কপি বই এখানে ইলিগ্যাল। (credit: Mahfuz Kamal)
    আজ এ পর্যন্তই, সবার কমেন্ট পেয়ে আপডেট করবো। তৈরি হয়ে যাক একটা লিস্ট।

    Facebook Comments



    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    ২৪ জুন ২০১৯

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দশদিক