• শিরোনাম

    জাপানে বহুদেশীয় সাংস্কৃতিক উৎসবে আলোকিত বাংলাদেশ

    রাহমান মনি | ২৭ জানুয়ারি ২০১৯ | ১২:০৩ অপরাহ্ণ | পড়া হয়েছে 983 বার

    জাপানে বহুদেশীয় সাংস্কৃতিক উৎসবে আলোকিত বাংলাদেশ

    জাপানে সম্প্রতি  ‘গ্লোবাল পিস ফাউন্ডেশন জাপান’ –এর আয়োজনে  টোকিওতে চতুর্থ বারের মতো অনুষ্ঠিত হয়েছে বহুদেশীয় এবং বহুমাত্রিক সাংস্কৃতিক  উৎসব ২০১৮ । গ্লোবাল পিস ফাউন্ডেশন জাপান –এর আয়োজনে এবারের আয়োজনটির নাম দেয়া হয়েছিল “মাল্টি কালচারাল ওয়ান ফ্যামিলি ফেস্টিভ্যাল ২০১৮”। টাইটেল দেওয়া হয়েছিল ‘কালার লেস’ বা বর্ণ বিহীন । ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ শনিবার ফেস্টিভ্যাল এ অংশ নিয়ে বরাবরের মতো এবারও প্রবাসী বাংলাদেশী শিশু শিল্পীরা বাংলাদেশের মান উজ্জ্বল সহ ভূয়সী প্রশংসা কুঁড়াতে সক্ষম হয় । টোকিওর সুমিদা কু মোনযেননাকাচো তে আয়োজিত ফেস্টিভ্যাল শুভ সূচনা করেন আয়োজন কমিটির সভাপতি মিস রেইকো ইশিই । শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি নোএমি ইনোউএ এবং অভিনেত্রী কেইকো কোবায়েশি ।  প্রতিবারে অংশ নেয়া স্বরলিপি কালচারাল একাডেমী টোকিওর শিশু শিল্পীদের দলীয় নৃত্ত  ছাড়াও এবার একক নৃত্তে অংশ নিয়ে শিশুরা দর্শকদের  তাক লাগিয়ে দিতে সক্ষম হয় । বিভিন্ন দেশের দর্শকরা বাংলা গানের সাথে বাংলাদেশ বাংলাদেশ বলে আওয়াজ তুলে মুখরিত হন । ফেস্টিভ্যাল  অংশ নেয়া শিশু শিল্পীরা হলেন , ভাগ্যশ্রী পাল তিথি , কথাশ্রী বিশ্বাস তন্বী , নাশরাহ আহমেদ এবং নিশাদ হায়দার লামিয়া প্রমুখ ।

    বিভিন্ন দেশের শিল্পীরা তাদের দেশীয় সংস্কৃতি প্রদর্শনের মাধ্যমে দিনব্যাপী আয়োজন কে মাতিয়ে মাতিয়ে রাখেন ।



    এবারের আয়োজনে বিশেষত্ব ছিল আন্তর্জালের মাধ্যমে বাছাই হওয়া পূর্ব নির্ধারিত বিভিন্ন দেশের অতিথিদের মধ্যে লটারির মাধ্যমে বিভিন্ন গ্রুপে ভাগ করে একটি সুনির্দিষ্ট বিষয় নির্ধারণ করে  নিজেদের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে বন্ধুত্ব তৈরি করা । জাত –  ধর্ম – বর্ণ আঞ্চলিকতা নির্বিশেষে সকলের মধ্যে বন্ধুত্বের সম্পর্ক গড়ে তোলা-ই ছিল আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য ।

    প্রবাসী বাংলাদেশীদের দ্বারা পরিচালিত ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান রিও ইন্টারন্যাশনাল , আইশোদো কো., লিমিটেড , পদ্মা কো., লিমিটেড ,চৌধুরী ট্রেডিং ইন্টারন্যাশনাল এবং সাদিয়াটেক কো., লিমিটেড বরাবরের মতো এবারও সহযোগিতার হাত  বাড়িয়ে অনুষ্ঠান সাফল্যমন্ডিত করে তুলেন ।

    বলাবাহুল্য , গ্লোবাল পিস ফাউন্ডেশন জাপান প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশীদের প্রাধান্য বরাবর ই বজায় রয়েছে । স্থানীয় জাপানীদের পর ই রয়েছে বাংলাদেশীদের অবস্থান এবং  ভাইস চেয়ার ( দ্বিতীয় প্রধান ) এর পদটিও বাংলাদেশীর দখলে ।

    বহুদেশীয় এবং বহুমাত্রিক সাংস্কৃতিক  উৎসব ২০১৮ এর ভাইস চেয়ার সাপ্তাহিক জাপান প্রতিনিধি রাহমান মনি সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে জাপানে অনুষ্ঠিতব্য ২০১৯ এর ওয়ার্ল্ড কাপ রাগবী , ২০২০ এর টোকিও অলিম্পিক এবং প্যারা অলিম্পিক ও ২০২৫ এর কানসাই বিশ্ব বানিজ্য মেলার সাফল্য কামনা সহ আবার দেখা হবে ২০১৯ –এ আশাবাদ ব্যাক্ত করে দিনব্যাপী আয়োজনের সমাপ্তি ঘোষণা করেন ।

    মন্তব্য করুন

    মন্তব্য

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ০২ এপ্রিল ২০১৯

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০  
  • ফেসবুকে দশদিক