• শিরোনাম

    জোরপূর্বক বন্ধ্যাকরণ নিয়ে ক্ষতিপূরণের দাবি নাকচ জাপানের আদালতের

    | ২৯ মে ২০১৯ | ৮:৩০ অপরাহ্ণ | পড়া হয়েছে 113 বার

    জোরপূর্বক বন্ধ্যাকরণ নিয়ে ক্ষতিপূরণের দাবি নাকচ জাপানের আদালতের

    জাপানের একটি আদালত কয়েক দশক আগে বর্তমানে অকার্যকর সু-প্রজনন সুরক্ষা আইনের অধীনে জোরপূর্বক বন্ধ্যাকরণের জন্য দুই নারীর দায়ের করা রাষ্ট্রীয় ক্ষতিপূরণের দাবি বাতিল করে দিয়েছে। তবে এর পাশাপাশি ঐ আইন যে অসাংবিধানিক ছিল, সেই ঘোষণাও দিয়েছে আদালত।

    উল্লেখ্য, মানসিক ব্যাধি, বংশগত রোগ অথবা অন্যান্য অসুস্থতায় ভোগার দোহাই দিয়ে ১৯৪৮ থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত কার্যকর থাকা ঐ আইনের আওতায় প্রায় ২৫ হাজার ব্যক্তিকে জোরপূর্বক এই বন্ধ্যাকরণের ভেতর দিয়ে যেতে হয়েছিল।

    বর্তমানে ৬০ এবং ৭০ বছরের কোঠায় থাকা উত্তর জাপানের মিয়াগী জেলার দুই নারীকেও তাদের কিশোরী বয়সে ঐ বন্ধ্যাকরণের মুখোমুখি হতে হয়েছিল।

    মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয় উল্লেখ করে তারা দু’জনে মিলে মোট ৭ কোটি ১৫ লক্ষ ইয়েন বা প্রায় ৬ লক্ষ ৫০ হাজার ডলারের ক্ষতিপূরণ রাষ্ট্রের কাছে দাবি করেন।

    সেন্দাই জেলা আদালতের সভাপতি বিচারপতি মোতোইউকি নাকাশিমা আজ ঐ নারীদের আবেদন বাতিল করে দেন।

    তবে সু-প্রজনন সুরক্ষা আইনটি যে জাপানের সংবিধানকে লঙ্ঘন করেছিল, রায়ে সেদিকেও দিকনির্দেশ করেন তিনি।

    উল্লেখ্য, জোরপূর্বক বন্ধ্যাকরণ নিয়ে জাপান জুড়ে দায়ের করা সাতটি মামলার মধ্যে এটিই প্রথম রায়।

    মন্তব্য করুন

    মন্তব্য

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    ১৮ এপ্রিল ২০১৯

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দশদিক