• শিরোনাম

    ‘ভোট না দিলে সাড়া দেব না’

    | ১৪ এপ্রিল ২০১৯ | ১২:০১ অপরাহ্ণ | পড়া হয়েছে 132 বার

    ‘ভোট না দিলে সাড়া দেব না’

    মুসলিম ভোটারদের কড়া বার্তা দিলেন মানেকা গান্ধী
    মানেকা গান্ধীর ৩ মিনিটের বক্তব্য ভাইরাল হয়েছে
    এবার মানেকা লড়ছেন ছেলে বরুণের আসন থেকে

    সংখ্যালঘুদের নিয়ে বিজেপি সরকারের আচরণ বরাবরই বিমাতাসুলভ। আর সেই অভিযোগে নতুন মাত্রা যোগ করে ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মানেকা গান্ধী নির্বাচনী প্রচারে ভোট চাইতে গিয়ে বলেন, মুসলিম ভোটাররা তাঁকে ভোট যদি না দেন, তবে তাঁদের কোনো কাজ করার আগে তিনি ভেবে দেখবেন।
    এ বক্তব্যর জন্য কারণ দর্শানো নোটিশ পেয়েছেন তিনি। তবে মন্ত্রী মানেকা গান্ধী বলেছেন, তাঁর বক্তব্য নাকি টুইস্ট করা হয়েছে।

    এবারে নিজের আসন উত্তর প্রদেশের পিলভিট থেকে লড়ছেন না মানেকা। তিনি লড়ছেন ছেলে বরুণ গান্ধীর সুলতানপুর থেকে। এবার মা ও ছেলের আসন অদল-বদল হয়েছে। এই আসনে লড়াইটা পিলভিটের থেকে অনেক কঠিন। এ আসনে মুসলিম ভোটার বেশি, তাই তাঁদের সমর্থনও প্রয়োজন হবে তাঁর। সংখ্যালঘু ভোটারদের আকৃষ্ট করতে গিয়েই বিপাকে পড়লেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, গত বৃহস্পতিবার সুলতানপুরে এক জনসভায় মুসলিম ভোটারদের উদ্দেশে কড়া বার্তা দিচ্ছেন মানেকা। তিনি বলেন, ‘এটা গুরুত্বপূর্ণ যে আমি জিততে চলেছি। কারণ, জনগণ আমাকে ভালোবাসেন ও সমর্থন করেন। মানুষের ভালোবাসায় আমি জিতব। কিন্তু আমার জয় যদি মুসলমানদের সমর্থন ছাড়া হয়, তাহলে আমার খুব একটা ভালো লাগবে না। মন তেতো হয়ে যাবে। কারণ, আপনাদের ভোটটা না পেলে মনটা খারাপ হয়ে যাবে। এরপর যখন আপনারা কাজে আসবেন, আমাকেও ভাবতে হবে আপনাদের কাজ দেওয়ার আগে। আসলে চাকরিটাও তো একটা ব্যবসা। আমরা তো সবাই মাহাত্মা গান্ধীর সন্তান নই যে আপনাদের দিয়েই যাব আর আপনারা ভোটটা আমাদের বিরুদ্ধেই দেবেন, তা তো হয় না। এই জয় আপনাদের ছাড়াও হবে। আর এটা সবাইকে বুঝিয়ে দেবেন।’ মন্ত্রীর মিনিট তিনেকের বক্তব্য ভাইরাল হয়েছে।

    মুসলিম ভোটারদের উদ্দেশে মানেকা বলেন, ‘আপনাদের ভোট না পেলেও আমরা জিতব। আমি এখন থেকেই নির্বাচনে জিতে গিয়েছি। আমাকে আপনাদের প্রয়োজন হবে। আর তাই এটাই আপনাদের সুযোগ। ভোটের পর যদি দেখা যায়, এই বুথ থেকে আমি ৫০-১০০টা ভোট পেয়েছি, তাহলে আলাদা কথা। তখন আমার কাছে কাজের জন্য আসবেন। আমি আমার দায়িত্ব এড়িয়ে যাই না। বিভাজনও করি না। আমি মানুষের দুঃখ ও কষ্টের কথা ভাবি।’

    মানেকার এই বক্তব্যকে কাঠগড়ায় তুলেছেন বিরোধীরা। তাঁরা বলছেন, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আরও একবার প্রমাণ করলেন, বিজেপি সংখ্যালঘুদের বিরোধী। কেউ কেউ আবার তাঁর বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগ তুলছেন। মানেকা তাঁর বক্তব্যের জন্য কারণ দর্শানোর নোটিশ পেয়েছেন। মানেকার ভাষ্য, তাঁর বক্তব্য টুইস্ট করা হয়েছে।

    অতিরিক্তি নির্বাচন কমিশনার বি আর তিওয়ারি বলেন, নির্বাচন কমিশন থেকে মন্ত্রীর কাছে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

    গতকাল শুক্রবার মানেকা গান্ধী বলেন, ‘আমার বক্তব্য টুইস্ট করা হয়েছে, আমি মুসলমানদের ভালোবাসি।’

    এর আগেও বিতর্ক সৃষ্টি করে এমন বক্তব্য দিয়েছেন মানেকা গান্ধী। তিনি বলেছেন, বহুজন সমাজবাদী পার্টির নেত্রী মায়াবতী অর্থের বিনিময়ে প্রার্থী ঠিক করেন। নির্বাচনে প্রার্থী করতে ১৫ থেকে ২০ কোটি করে অর্থ নেন মায়া। মানেকা বলেন, সবাই জানে মায়া টিকিট বিলি করতে পয়সা নেন। তাঁর দলের লোকেরা সেটা গর্ব করে বলেন। তাঁর ৭৭টি বাড়ি আছে।

    তথ্যসূত্র: এনডিটিভি ও বিবিসি

    মন্তব্য করুন

    মন্তব্য

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে দশদিক