• শিরোনাম

    সৌদি আরবের হয়ে যুদ্ধ করবে না বাংলাদেশের সৈন্যরা

    | ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | ১০:২৮ পূর্বাহ্ণ | পড়া হয়েছে 416 বার

    সৌদি আরবের হয়ে যুদ্ধ করবে না বাংলাদেশের সৈন্যরা

    প্রতিরক্ষা চুক্তির আওতায় সৌদি আরবের পক্ষে যুদ্ধের জন্য কোনো সৈন্য পাঠাবে না বাংলাদেশ। তবে ১৮০০ সৈন্য যাবে ইয়েমেন-সৌদি সীমান্তে মাইন অপসারণের জন্য। সৌদি সামরিক বাহিনীকে পরামর্শ ও কারিগরি সহায়তা দেবে বাংলাদেশ।

    প্রধানমন্ত্রীর আসন্ন বিদেশ সফরের উপর আজ বুধবার সকালে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানানো হয়।

    সংবাদ সম্মেলনে আরো জানানো হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামীকাল জার্মানি ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়ে যাবেন।

    জার্মানির মিউনিখে নিরাপত্তা সম্মেলন ও আমিরাতে প্রতিরক্ষা সম্মেলনে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। তবে এ সফরে আমিরাতের সাথে কোনো প্রতিরক্ষা চুক্তি হচ্ছে না।

    সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে ড. আব্দুল মোমেন ও পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক।

    প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামীকাল জার্মানির উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করবেন। টানা তৃতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর এটি তার প্রথম বিদেশ সফর। দেশে ফেরার পথে তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাত সফর করবেন।

    প্রধানমন্ত্রীর অফিসের একজন মুখপাত্র বলেন, দেশ দুটিতে ছয় দিনের সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জার্মানির মিউনিখে একটি আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দিবেন। এছাড়া তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবিতে একটি প্রতিরক্ষা প্রদর্শনীতে যোগ দিবেন। তিনি মধ্যপ্রাচ্যের দেশটির সঙ্গে একটি দ্বিপক্ষীয় বৈঠকও করবেন।

    সফরসূচি অনুযায়ী, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং তার সফর সঙ্গীদের নিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট আগামীকাল সকালে ঢাকা ত্যাগ করবে। ১৪ ফেব্রুয়ারি দুই দিনব্যাপী মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলন শুরু হবে।

    প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানটি মিউনিখ সময় দুপুর ১টা ১৫ মিনিটে মিউনিখ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছুবে।

    সেখানে তিনি বেশ কয়েকটি বৈঠক করবেন।

    মিউনিখে প্রধানমন্ত্রী শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ী প্রতিনিধি ও হেলথ ক্যাম্পেইনারদের সাথেও বৈঠক করবেন।

    মুখপাত্র বলেন, শেখ হাসিনা ১৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আবুধাবিতে সফর করবেন। সেখানে তিনি ১৪তম আন্তর্জাতিক প্রতিরক্ষা প্রদর্শণী (আইডিইএক্স-২০১৯)-তে অংশ নিবেন এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন।

    মিউনিখে পৌঁছার কয়েক ঘন্টা পর প্রধানমন্ত্রী হোটেল শেরাটনে প্রবাসী বাংলাদেশীদের দেয়া একটি সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন।

    সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজক জার্মানির বাংলাদেশ মিশন।

    সফরকালে প্রধানমন্ত্রী এই হোটেলেই অবস্থান করবেন।

    শেখ হাসিনা পরের দিন নিরাপত্তা সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বক্তৃতা করবেন এবং প্রতিরক্ষা সহযোগিতার ওপর আলোচনায় অংশ নেবেন।

    মন্তব্য করুন

    মন্তব্য

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০  
  • ফেসবুকে দশদিক